Tips, tutorials, and techniques for the modern Freelancer.
#29
যারা ই-মেইল ব্যবহার করেন তাদের একটি সাধারন অভিজ্ঞতা স্ক্যাম মেইল পাওয়া। একদিন মেইল পেলেন সেখানে লেখা, আপনি অমুক লটারীতে ১০ লক্ষ ডলার জিতেছেন। টাকা পাওয়ার জন্য নিজের নাম-ঠিকানা দিয়ে যোগাযোগ করুন।

গুগল লটারী, ইয়াহু লটারী, মাইক্রোসফট লটারী, কোকাকোলা লটারী, আইরিশ লটারী ইত্যাদি নাম দেখে আপনি আগ্রহি হয়ে নিজের নাম-ঠিকানা দিতেই পারেন। ভাবতে পারেন কোন সমস্যা তো নেই। তারা তাদের প্রচারের জন্য এই সামান্য টাকা দিয়ে উতসাহ দিতেই পারে।

প্রতারনা এখান থেকে শুরু। উত্তর দিলে এরপর সাধারনভাবে যা বলা হয়, অমুক কাজ করতে ১০০ ডলার প্রয়োজন হবে, সেটা পাঠান। যদি সেটা দেন এরপর আরেক কারনে আরো ১০০ ডলার। এভাবে যতদিন আপনার কাছে টাকা নেয়া যায় ততদিন নিতে থাকবে।

আরেকটি উদাহরন, একদিন মেইল পাওয়া গেল, ব্যাংকক এয়ারপোর্টে মালিকবিহীন একটি বাক্স পাওয়া গেছে। মনে হচ্ছে এটা আপনার। আমাদের ধারনা এর ভেতরে ডলার আছে যার পরিমান আনুমানিক ১০ লক্ষ ডলার। নেয়ার জন্য নাম-ঠিকানা দিয়ে যোগাযোগ করুন।

এরা প্রথমেই আপনাকে টাকা দিতে বলে না, শুরুতে প্রলোভন দেখায়। যাচাই করে। তারপর টাকার কথা বলে।
তারপরও এধরনের প্রতারনা ধরা সহজ। কিছুটা সচেতন হলে নিজেকেই প্রশড়ব করতে পারেন, আপনি লটারীর টিকিট না কিনে কিভাবে আইরিশ লটারীর টাকা জিতলেন, কিংবা ব্যবহার করেন গুগলের জি-মেইল আপনাকে ইয়াহু পুরস্কার দেবে কেন ? আর যদি প্রযুক্তির খবর রাখেন তাহলে ধরেই নেবেন মাইক্রোসফট লটারী বা এধরনের পুরস্কার কখনো দেয় না।

অনেক প্রতারনা ধরা এতটা সহজ না। বিশেষ করে সহজে আয়ের বিষয় যেখানে জড়িত। এভাবে আয় করা যায় একথা ঠিক, কাজেই পুরোপুরি অবিশ্বাস করতে পারছেন না। মনে হচ্ছে সত্যি হলেও হতে পারে।
প্রতারিত না হওয়ার জন্য বেঞ্জামিন ফ্রাংকলিন এর কথা স্মরন করতে পারেন। তিনি বিজ্ঞানী এবং আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ছিলেন। তার অনেক কথা প্রবাদের মত সারা বিশ্বে ব্যবহার করা হয়। তার একটি হচ্ছে, এক টাকা বাচানোর অর্থ এক টাকা আয় করা।

আপনি ১০০ টাকা লাভ দেয়ার কথা বলে ১ টাকা খরচ করতে বলা হয়েছে। বাংলাদেশে গাছ লাগালে বাড়ি দেয়া হবে এমন প্রচারনার সাথে তুলনা করতে পারেন। আশ্চর্যজনক বিষয় হচ্ছে লক্ষ লক্ষ মানুষ নিজের টাকা দিয়েছেনও।
তারচেয়ে বরং সেই একটাকা জমিয়ে সেটাই আয় করুন।

বিশ্বে প্রতারকের অভাব নেই। ইন্টারনেটে পরিচয় গোপন রেখে কাজ করা যায় বলে প্রতারনার সুযোগ তুলনামুলক বেশি। আর যারা সহজে আয়ের পথ খোজেন তাদের প্রতারিত করা তুলনামুলক সহজ।
কিভাবে সহজে আয় করবেন সে সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে কি করলে প্রতারিত হবেন না, বা ঠকবেন না সেটা জানা জরুরী। আপনি নিশ্চয়ই এমন কাজে নিজের অর্থ-শ্রম-সময় ব্যয় করতে চান না যেখানে ফলাফল শুন্য। নিজের বিনিয়োগ হিসেব করলে মাইনাস।

প্রতারক সবসময়ই সাধারন ব্যক্তিদের থেকে বেশি বুদ্ধিমান। এমন নতুন নতুন পদ্ধতি উদ্ভাাবন করে যে আগে থেকে শতর্ক থাকা যায় না। তারপরও কিছু পদ্ধতি সাধারনভাবে প্রতারনার পদ্ধতি হিসেবে স্বিকৃতি পেয়েছে। সেগুলি সম্পর্কে জেনে নিজেকে সাবধান রাখতে পারেন।

একটু সামান্য অভিজ্ঞতা আপনাকে শিখিয়ে দেবে যে ফ্রিল[…]

যাঁরা প্রচলিত অফিস বাদ দিয়ে ঘরে বসে ফ্রিল্যান্সিং[…]