Tips, tutorials, and techniques for the modern Freelancer.
#27
একইভাবে ক্লিক করে আয় (পিটিসি) সম্পর্কে বলা হয়েছে আপনি সারাদিন ক্লিক করে মাসে কয়েকশত (কিংবা কয়েক হাজার) ডলার আয় করতে পারবেন। সেখানে উল্লেখ করা হয়নি আপনাকে সারাদিন ক্লিক করার সুযোগ দেয়া হবে না, কিংবা আয় দেখা গেলেও আপনি কখনো সেই টাকা হাতে পাবেন না।

মনে হতে পারে টাকা আয়ের সেই টিউটোরিয়াল সিডি পুরোপুরি ভাওতাবাজি। সিডি বিক্রি করে আয় করার পদ্ধতি। কারো কারো কাছে হয়ত তাই। এর ভাল দিকটি উল্লেখ করা যাক;

সেই মাল্টিমিডিয়া থেকেই আগ্রহ জন্মে ব্লগ তৈরীর। প্রযুক্তি বিষয়ক একটি ব্লগে (বর্তমানে চালু নেই) প্রযুক্তির সংবাদ এবং রিভিউ লেখার পাশাপাশি ইন্টারনেট আয়ের সত্যিকারের তথ্য নিয়ে লেখা, এবিষয়ে ক্রমাগত খোজ নেয়ার ফল হচ্ছে একদিকে বর্তমান বাংলা টিউটর সাইট অন্যদিকে পুরোপুরি ফ্রিল্যান্সারে পরিনত হ্ওয়া। এবং এই বই।
কাজেই সেই সিডি যা করতে পেরেছে তা হচ্ছে আগ্রহ সৃটি করা। ইন্টারনেটে আয় সম্পর্কে যখন কিছু বলা হয় তখন মানুষের আগ্রহ সৃষ্টি হয়, এটাই ভাল দিক। কিংবা বলা যেতে পারে প্রথম পদক্ষেপ।

আর মন্দ দিক হচ্ছে ভুল পথে পরিচালিত হওয়া, কিংবা অবাস্তব স্বপ্ন দেখা। বর্তমানে সেটা হচ্ছে। কেউ কেউ এরই মধ্যে সহজে টাকা আয়ের প্রতারনার ফাদ ফেলে অনেকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। সংবাদ মাধ্যমে তাদের প্রতিবাদের খবর প্রচার হচ্ছে। অন্যদিকে অনেকে সহজ ভেবে শুরু করে হোচট খাচ্ছেন কিংবা যে পরিমান আয়ের কথা বলা হচ্ছে সেটা না পেয়ে হতাস হচ্ছেন।

মুল বক্তব্যে ফেরা যাক। ইন্টারনেটে সহজে আয় করা যায় কথাটি সত্য না মিথ্যা।
সত্য এবং মিথ্যা দুটিই ঠিক। ইন্টারনেটে আয় করা যায় একথা সত্য। সহজে আয় করা যায় একথাও সত্য। সহজে বিপুল পরিমান আয় করা যায় একথা মিথ্যা।

সহজ আয় বলতে যা বুঝায় ( যেমন বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে ) তাতে মাসে ৫ থেকে ১০ ডলার আয় করাও কষ্টকর। এরবেশি আয় করা সম্ভব তবে তখন আর বিষয়টি সহজ থাকে না। এজন্য বিপুল পরিমান কাঠখড় পোড়াতে হয়। তারপরও ইন্টারনেটে আয়, আউটসোর্সিং কিংবা ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে এত আলোচনা কেন?

কারন আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং কাজকে পুরোপুরি পেশা হিসেবে করা যায়। ডলারে আয় বলে আয়ের পরিমানও তুলনামুলক বেশি। এমনটি সাধারন টাইপিং কাজে প্রতিপেজে ১ থেকে ২ ডলার পাওয়া যায়। লোগো ডিজাইন করে ২০ থেকে ২০০ ডলার পাওয়া যায় কিংবা ওয়েবসাইট তৈরী করে হাজার ডলার পর্যন্ত পাওয়া যায়।

একটু সামান্য অভিজ্ঞতা আপনাকে শিখিয়ে দেবে যে ফ্রিল[…]

যাঁরা প্রচলিত অফিস বাদ দিয়ে ঘরে বসে ফ্রিল্যান্সিং[…]